Saturday, June 30, 2018

বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের আধীনস্থ বরিশাল শিক্ষাবোর্ড, চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড, কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ড, ঢাকা শিক্ষা বোর্ড, দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ড, যশোর শিক্ষা বোর্ড, ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ড, রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড, সিলেট শিক্ষা বোর্ড, টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ডে সহ সকল শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট এবং মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের আলিম পরীক্ষার ফলাফল জুলাই মাসের ১৯ তারিখে (১৯/০৭/২০১৮) প্রকাশিত হবে।
এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 | আলিম রেজাল্ট 2018 | এইচ এস সি ও আলিম ফলাফল ২০১৮ | HSC and Alim Result
বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের আধীনস্থ সাধারন বোর্ডসমূহের এইচ এস সি পরীক্ষা এবং মাদ্রাসা বোর্ডের আলিম পরীক্ষার রেজাল্ট প্রতিবছর একই দিনে একযোগে প্রকাশিত হয়ে থাকে। আপনি সবার আগে সবচেয়ে দ্রুত এবং খুব সহজেই আপনার কাঙ্খিত এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 এবং সমমান আলিম রেজাল্ট 2018 ফুল মার্কমিট সহকারে ডাউনলোড করতে পারবেন এখান থেকেই....................
এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 | আলিম রেজাল্ট 2018 | এইচ এস সি ও আলিম ফলাফল ২০১৮ | HSC and Alim Result
সাধারনত মোবাইল ফোন থেকে SMS পাঠিয়ে, এইচ এস সি পরীক্ষার রোল এবং রেজিষ্ট্রশন নাম্বার এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number ব্যবহার করে এই তিনটি উপায়ে আপনি HSC Result 2018 এবং Alim Result 2018 সংগ্রহ করতে পারবেন। নিচে সকল পদ্ধতি বিস্তারিত সহকারে তুলে ধরা হল.....................

Mobile Phone থেকে SMS পাঠিয়ে এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 ( HSC Result 2018 ) জানার উপায়.....

এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 জানার সবচেয়ে দ্রুত এবং কার্যকরি উপায় হল এটি। আপনি মোবাইল ফোন থেকে SMS পাঠিয়ে.......
ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতে > প্রথমে আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন HSC <স্পেস> DHA <স্পেস> আপনার এইচ এস সি রোল নাম্বার <স্পেস> 2018 লিখে মেসেজটি পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।
উদাহরনঃ HSC DHA 151617 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতে > প্রথমে আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন HSC <স্পেস> CHI <স্পেস> আপনার এইচ এস সি রোল নাম্বার <স্পেস> 2018 লিখে মেসেজটি পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

উদাহরনঃ HSC CHI 181920 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

সিলেট শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতেপ্রথমে আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন HSC <স্পেস> SYL <স্পেস> আপনার এইচ এস সি রোল নাম্বার <স্পেস> 2018 লিখে মেসেজটি পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।
উদাহরনঃ HSC SYL 212223 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

রাজশাহী এডুকেশন বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 ফুল মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতেপ্রথমে আপনার মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন HSC <স্পেস> RAJ <স্পেস> আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল নাম্বার <স্পেস> 2018 লিখে পুরো মেসেজটি 16222 এই নাম্বারে পাঠিয়ে দিন 

উদাহরনঃ HSC RAJ 242526 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

বরিশাল এডুকেশন বোর্ডের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট 2018 ফুল মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতেপ্রথমে আপনার মোবাইল ফোনের মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন HSC <স্পেস> BAR <স্পেস> আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল নাম্বার <স্পেস> 2018 লিখে পুরো মেসেজটি 16222 এই নাম্বারে পাঠিয়ে দিন 

উদাহরনঃ HSC BAR 272829 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট 2018 মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতে > প্রথমে আপনার Mobile phone এর message option গিয়ে type করুন HSC <স্পেস> COM <স্পেস> Type Roll Number of your HSC Examination <স্পেস> 2018 লিখে full message টি 16222 এই নাম্বারে পাঠিয়ে দিন

উদাহরনঃ HSC COM 303132 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

যশোর এডুকেশন বোর্ডের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট 2018 ফুল মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতেপ্রথমে আপনার Mobile phone এর message option গিয়ে type করুন HSC <স্পেস> JES <স্পেস> Type Roll Number of your HSC Examination <স্পেস> 2018 লিখে full message টি 16222 এই নাম্বারে পাঠিয়ে দিন

উদাহরনঃ HSC JES 333435 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

দিনাজপুর এডুকেশন বোর্ডের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট 2018 ফুল মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতে > প্রথমে আপনার Mobile phone এর message option গিয়ে type করুন HSC <স্পেস> DIN <স্পেস> Type Roll Number of your HSC Examination <স্পেস> 2018 লিখে full message টি 16222 এই নাম্বারে পাঠিয়ে দিন।

উদাহরনঃ HSC DIN 363738 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতে > প্রথমে আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন HSC <স্পেস> TEC <স্পেস> আপনার এইচ এস সি রোল নাম্বার <স্পেস> 2018 লিখে মেসেজটি পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

উদাহরনঃ HSC TEC 394041 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের আলিম রেজাল্ট 2018 মার্কশিট সহকারে মোবাইল থেকে জানতে > প্রথমে আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন ALIM <স্পেস> MAD <স্পেস> আপনার আলিম রোল নাম্বার <স্পেস> 2018 লিখে মেসেজটি পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

উদাহরনঃ ALIM MAD 424344 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

Internet থেকে Roll এবং Reg: Number দিয়ে HSC Result 2018 এবং সমমান ALIM Result 2018 Full Marksheets সহ Download করবেন যেভাবে.........

সরাসরি বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে সকল শিক্ষাবোর্ডের HSC Result 2018 এবং সমমান ALIM Result 2018 Full Marksheets সহ Download করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন>>>> 
>>>>>প্রথম ওয়েবসাইট ⟶ www.educationboardresults.gov.bd ⟵ Link 01<<<<<>>>>>দ্বিতীয় ওয়েবসাইট ⟶ www.eboardresults.com ⟵ Link 02<<<<<

☞এছাড়া নিজ নিজ শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে আপনি এইচএসসি এবং সমমান পরীক্ষার রোল এবং রেজিষ্ট্রশন নম্বর ব্যবহার করে এইচ এস সি এবং সমমান পরীক্ষার ফলাফল জানতে নিচের লিংকগুলো থেকে আপনার পছন্দের শিক্ষা বোর্ড টি সিলেক্ট করে পরবর্তী নিয়ম অনুসরন করুন>>>>>>>>>>>

All Education Board HSC & Alim Exam Result BD













ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
সিলেট শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
যশোর শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
বরিশাল শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
দিনাজপুর শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
টেকনিক্যাল শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে এইচ এস সি ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>
মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে আলিম ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে >>>

Online থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number ব্যবহার করে HSC Result 2018 এবং সমমান ALIM Result 2018 Download করবেন যেভাবে.........

অনলাইন থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number ব্যবহার করে এইচ এস সি ফলাফল 2018 এবং সমমান আলিম ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে পারবেন খুব সহজেই। এ পদ্ধতির সবচেয়ে বড় সুবিধা হল আপনি একসাথে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের এইচএসসি সমমান পরীক্ষায় অংশগ্রহনকারী সকল ছাত্র - ছাত্রীর এইচ এস সি সমমান ফলাফল একটি পিডিএফ ফাইল আকারে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। তবে এ পদ্ধতিতে আপনি শুধু রোল নম্বর অনুযায়ী রেজাল্ট জানতে পারবেন কিন্তু মার্কশিট পাবেন না।
সরাসরি বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে সকল শিক্ষাবোর্ডের HSC Result 2018 এবং সমমান ALIM Result 2018 Download করতে নিচের লিংকে ক্লিক করুন>>>> 
>>>>>প্রথম ওয়েবসাইট ⟶ eiinresults.educationboard.gov.bd ⟵ Link 01<<<<<>>>>>দ্বিতীয় ওয়েবসাইট ⟶ eiinresults.eboardresults.com ⟵ Link 02<<<<<

☞নিজ শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইট থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number ব্যবহার করে এইচ এস সি ফলাফল 2018 এবং সমমান আলিম ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে নিচের লিংকগুলো থেকে আপনার পছন্দের শিক্ষা বোর্ড টি সিলেক্ট করে পরবর্তী নিয়ম অনুসরন করুন>>>>>>>>>>>

All Education Board HSC & Alim Exam Result BD














Dhaka Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Result 2018 Download করতে >>>
Chittagong Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Result 2018 Download করতে >>>
Comilla Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Result 2018 Download করতে >>>
Dinajpur Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Results 2018 Download করতে >>>
Jessore Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Results 2018 Download করতে >>>
Rajshahi Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Results 2018 Download করতে >>>
Sylhet Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Exam Result 2018 Download করতে >>>
Barisal Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Exam Result 2018 Download করতে >>>
Technical Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে HSC Exam Result 2018 Download করতে >>>
Madrasah Education Board এর Website থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে Alim Result 2018 Download করতে >>>



=====================

☞পোষ্ট টি শেয়ার করুন, যাতে অন্যেরাও উপকৃত হতে পারে।
☞প্রয়োজনীয় সমাধান পেতে আমাদের ফেসবুক গ্রুপে যোগ দিন এবং ফেসবুক পেজে লাইক কমেন্ট করে আপনার মতামত প্রদান করুন।


Read More »

Thursday, June 28, 2018

বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের অধীনস্থ সকল শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৮ সালের এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল জানার সকল সহজ পদ্ধতি নিচে শেয়ার করা হল।
HSC Result 2018 | এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 | Alim Result 2018 | আলিম রেজাল্ট 2018 |
আপনি যদি  আপনার কাঙ্খিত এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ সবার আগে সবচেয়ে দ্রুত এবং খুব সহজেই জানতে চান তাহলে পোষ্ট টি ধৈর্য সহকারে পড়ুন এবং নিয়ম অনুযায়ী রেজাল্ট সংগ্রহ করুন।

এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 ( HSC Exam Result 2018 ) ঢাকা শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি ফলাফল 2018 - এইচ এস সি রেজাল্ট মার্কশিট 2018 আপনি তিনটি উপায়ে ডাউন লোড করতে পারবেন......
প্রথমতঃ মোবাইল ফোন থেকে SMS এর মাধ্যমে জানতে পারবেন আপনার এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 _ এজন্য আপনার মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করতে হবে HSC স্পেস DHA স্পেস আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল নাম্বার স্পেস 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।
উদাহরনঃ HSC DHA 151617 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

২য় পদ্ধতিঃ অনলাইন - ইন্টারনেট থেকে আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি ফলাফল 2018 - এইচ এস সি রেজাল্ট মার্কশিট 2018 ডাউনলোড করতে এই লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী নিয়ম অনুসারে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল সংগ্রহ করুন।


৩য় পদ্ধতিঃ অনলাইন - ইন্টারনেট থেকে  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number নম্বর দিয়ে ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে এই লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী নিয়ম অনুসারে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল সংগ্রহ করুন।

এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Exam Result BD ) চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ

চট্টগ্রাম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত ' এইচ এস সি পরীক্ষা ২০১৮ এর ফলাফল জানার নিয়ম......
১ম পদ্ধতিঃ চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ফুল মার্কশিট সহকারে আপনার মোবাইল ফোন থেকে পেতে প্রথমে আপনার  মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন HSC একটি স্পেস দিয়ে আবার লিখুন CHI স্পেস আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল নাম্বার লিখুন  আবার স্পেস দিয়ে 2018 লিখে মেসেজটি পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।
উদাহরনঃ HSC CHI 161718 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।

২য় পদ্ধতিঃ আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে অনলাইন থেকে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ মার্কশিট সহকারে ডাউনলোড করতে এই লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী নিয়ম অনুসারে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল সংগ্রহ করুন।

৩য় পদ্ধতিঃ শিক্ষা প্রতিষ্টানের Eiin Number দিয়ে অনলাইন থেকে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি রেজাল্ট সংগ্রহ করতে এই লিংকে ক্লিক করুন।

এইচ এস সি ফলাফল 2018 ( HSC Exam Results 2018 ) সিলেট এডুকেশন বোর্ড বাংলাদেশ

সিলেট ইন্টারমিডিয়েট এন্ড সেকেন্ডারি এডুকেশন বোর্ডের 2018 সালের এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল জানার পদ্ধতি....
প্রথম পদ্ধতিঃ সিলেট বোর্ডের এইচ এস সি ফলাফল 2018 ফুল মার্কশিট সহকারে আপনার মোবাইল ফোন মেসেজের মাধ্যমে জানতে ' প্রথমে মোবাইলের মেসেজ অপশনে গিয়ে লিখুন HSC স্পেস দিয়ে লিখুন SYL আবার স্পেস দিয়ে আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল নাম্বারটি লিখুন আবার স্পেস দিয়ে লিখুন 2018 তারপর পুরো মেসেজটি পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।
উদাহরনঃ HSC SYL 161718 2018 লিখে পাঠিয়ে দিন 16222 এই নাম্বারে।


২য় পদ্ধতিঃ Online থেকে HSC Roll and Reg: Number দিয়ে Sylhet Education Board এর HSC Result 2018 জানতে এই লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী নিয়ম অনুসারে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল সংগ্রহ করুন।

৩য় পদ্ধতিঃ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে Sylhet Education Board এর HSC Exam Result 2018 Download করতে এই লিংকে ক্লিক করুন।

এইচ এস সি ফলাফল ২০১৮ ( HSC Exam Result 2018 BD ) রাজশাহী এডুকেশন বোর্ড বাংলাদেশ

বাংলাদেশ রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের অধীনে ২০১৮ সালের এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল জানার সকল উপায় বিস্তারিত সহকারে..........
১ম পদ্ধতিঃ মোবাইল ফোন থেকে মেসেজের মাধ্যমে এইচ এস সি ফলাফল ২০১৮ ফুল মার্কশিট সহকারে পেতে চাইলে...
এইচ এস সি ফলাফল ২০১৮ রাজশাহী এডুকেশন বোর্ড বাংলাদেশ
২য় পদ্ধতিঃ অনলাইন - ইন্টারনেট থেকে আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে সিলেট শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি ফলাফল 2018 - এইচ এস সি রেজাল্ট মার্কশিট 2018 ডাউনলোড করতে এই লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী নিয়ম অনুসারে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল সংগ্রহ করুন।

৩য় পদ্ধতিঃ অনলাইন - ইন্টারনেট থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number নম্বর দিয়ে সিলেট শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি ফলাফল 2018 সংগ্রহ করতে এই লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী নিয়ম অনুসারে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল সংগ্রহ করুন।


এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট 2018 ( HSC Exam Result 2018 BD ) কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ

বাংলাদেম মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড কুমিল্লা এর এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট 2018 জানার সকল উপায় বিস্তারিত সহকারে.....
১ম পদ্ধতিঃ আপনার মোবাইল ফোন থেকে কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ডের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট 2018 মার্কশিট সহকারে পেতে.....
এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট 2018 কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ
২য় পদ্ধতিঃ আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে অনলাইন থেকে কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ মার্কশিট সহকারে ডাউনলোড করতে এই লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী নিয়ম অনুসারে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল সংগ্রহ করুন।

৩য় পদ্ধতিঃ শিক্ষা প্রতিষ্টানের Eiin Number দিয়ে অনলাইন থেকে কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের এইচএসসি রেজাল্ট সংগ্রহ করতে এই লিংকে ক্লিক করুন।


এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Exam Results 2018 ) বরিশাল শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ

বরিশাল সেকেন্ডারি এন্ড ইন্টারমিডিয়েট শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৮ সালের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট সংগ্রহ করার সকল উপায়সমূহ.......
১ম পদ্ধতিঃ মোবাইল ফোন ্রথেকে SMS এর মাধ্যমে বরিশাল শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট ২০১৮ মার্কশিট সহকারে জানতে.....
এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট ২০১৮ বরিশাল শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ
২য় পদ্ধতিঃ Online থেকে HSC Roll and Reg: Number দিয়ে Barisal Education Board এর HSC Result 2018 জানতে এই লিংকে ক্লিক করে পরবর্তী নিয়ম অনুসারে আপনার কাঙ্খিত ফলাফল সংগ্রহ করুন।


৩য় পদ্ধতিঃ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে Barisal Education Board এর HSC Exam Result 2018 Download করতে "এই লিংকে ক্লিক করুন"

এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল 2018 ( HSC Exam Result 2018 ) যশোর এডুকেশন বোর্ড বাংলাদেশ

যশোর শিক্ষাবোর্ডের 2018 সালের এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল সবচেয়ে দ্রুত এবং খুব সহজেই ডাউনলোড করার সকল উপায়....
প্রথম পদ্ধতিঃ যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল 2018 ফুল মার্কশিট সহকারে মোবাইল ফোন অপারেটরের মাধ্যমো জানতে চাইলে.....
এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল 2018 যশোর এডুকেশন বোর্ড বাংলাদেশ
দ্বিতীয় পদ্ধতিঃ HSC পরীক্ষার Roll এবং Reg: Number ব্যবহার করে যশোর শিক্ষা বোর্ডের HSC Exam Result 2018 Marksheets সহকারে অনলাইন থেকে Download করতে এই লিংকে ক্লিক করে রেজাল্ট সংগ্রহ করুন।

তৃতীয় পদ্ধতিঃ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দ্বারা Your HSC Result 2018 BD সংগ্রহ করতে চাইলে "এই লিংকে ক্লিক করুন" 

এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল ২০১৮ ( HSC Exam Result 2018 ) দিনাজপুর এডুকেশন বোর্ড বাংলাদেশ

তিনটি স্বাভাবিক উপায়ে আপনি দিনাজপুর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল ২০১৮ মার্কশিট সহকারে জানতে পারবেন.......
১ম পদ্ধতিঃ Mobile Phone থেকে SMS এর মাধ্যমে HSC Results  2018 Full Marksheets সহকারে জানতে.........
এইচ এস সি পরীক্ষার ফলাফল ২০১৮ দিনাজপুর এডুকেশন বোর্ড বাংলাদেশ

২য় পদ্ধতিঃ দিনাজপুর বোর্ডের HSC Result BD 2018 Online থেকে Full Marksheet সহ Download করতে এই লিংকে ক্লিক করুন।

৩য় পদ্ধতিঃ অনলাইন থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে দিনাজপুর বোর্ডের HSC Result BD 2018 জানতে "এই লিংকে ক্লিক করুন"

এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 (hsc exam result 2018) টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ

টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ এর অধীনে অনুষ্ঠিত 2018 সালের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট জানার সকল সহজ উপায়সমূহ....
১ম পদ্ধতি ঃ আপনার মুঠোফোন বা স্মার্ট ফোন থেকে খুব সহজেই টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ডের  এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 মার্কশিটসহ জানতে......
এইচ এস সি রেজাল্ট 2018 টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ
২য় পদ্ধতিঃ Internet থেকে আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার Roll and Reg: Number দিয়ে Technical Education Board এর HSC Result 2018 Full Marksheet সহকারে Download করতে এই লিংকে ক্লিক করে রেজাল্ট সংগ্রহ করুন।

৩য় পদ্ধতিঃ Online থেকে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ডের HSC রেজাল্ট 2018 সংগ্রহ করতে "এখানে ক্লিক করুন"

আলিম রেজাল্ট 2018 ( Alim Result 2018 ) বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা

বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত 2018 সালের আলিম পরীক্ষার রেজাল্ট ডাউনলোড করার সকল সহজ কার্যকরী উপায়সমূহ.....
প্রথম পদ্ধতিঃ মোবাইল ফোন থেকে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের আলিম রেজাল্ট ২০১৮ মার্কশিট সহকারে জানতে.....
আলিম রেজাল্ট 2018 বাংলাদেশ মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা


২য় পদ্ধতিঃ Internet থেকে আপনার আলিম পরীক্ষার Roll and Reg: Number দিয়ে Madrasah Education Board এর Alim Result 2018 Full Marksheet সহকারে Download করতে এই লিংকে ক্লিক করে কাঙ্খিত আলিম রেজাল্ট সংগ্রহ করুন।

৩য় পদ্ধতিঃ Online থেকে মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের আলিম রেজাল্ট 2018 সংগ্রহ করতে "এখানে ক্লিক করুন"

☞ পোষ্ট টি শেয়ার করুন।

Tags: HSC Exam Result 2018 powared by Dhaka Education Board. HSC Exam Results 2018 powared by Chittagong Education Board. HSC Exam Result 2018 bd powared by Comilla Education Board. HSC Exam Results 2018 bd powared by Dinajpur Education Board. HSC Exam Result bd 2018 powared by Jessore Education Board. HSC Exam Results bd 2018 powared by Rajshahi Education Board. HSC Exam Result 2018 powared by Sylhet Education Board. HSC Exam Result 2018 powared by Technical Education Board. HSC Exam Result 2018 powared by Barisal Education Board. Alim Exam Result 2018 powared by Madrrasah Education Board

Read More »

Saturday, June 23, 2018

"কিয়ামত দিবস সম্পর্কিত ধারাবাহিক আলোচনার প্রথম পর্ব"

" বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম "
কিয়ামতের দিবসের অবস্থা, কিয়ামতের ভয়াবহ অবস্থা, কেয়ামতের অালোচনা, কি হবে কিয়ামতের দিনে, কিয়ামতের দিন মানুষ যেভাবে উঠবে, কিয়ামতের দিন মানুষের যা হবে
সমস্ত প্রশংসা মহান আল্লাহ রব্বুল আলামীনের জন্য, আমরা উনারই গুনকীর্তন করিতেছি এবং উনারই কাছে সাহায্য চাহিতেছি এবং একমাত্র উনারই নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করিতেছি। এবং আমরা আমাদের প্রবৃত্তির কুচক্র হইতে বাচিবার জন্য আল্লাহ রব্বুল আলামীনের দরবারে সাহায্য ভিক্ষা করিতেছি। আল্লাহ রব্বুল আলামীন যাকে দয়া করে হেদায়েত করেন তাহাকে কেহই পথভ্রষ্ট গোমরাহ করিতে পারে না, পক্ষান্তরে বান্দা নিজ ইচ্ছায় গোমরাহ হইবার জন্য দৃঢ় হইবার পর (নিজ ইচ্ছায় কু-পথে পরিচালিত হওয়ার জন্য প্রতিঙ্গা করে ফেলার পর যখন সে পথে নিজেকে পরিচালিত করতে থাকে) আল্লাহ রব্বুল আলামীন যদি তাহার জন্য গোমরাহী নির্ধারণ করেন তবে তাহাকে আর কেহই হেদায়েত করিতে পারে না। এ সম্পর্কে আল্লাহ রব্বুল আলামীন পবিত্র কুরআন শরীফে ইরশাদ করেন.... " অতএব আল্লাহ রব্বুল আলামীন যাকে সৎপথ দেখাতে চান, তিনি তার বক্ষদেশকে (হৃদয় কে)  ইসলামের জন্য প্রশস্ত করে দেন আর যাকে বিপথগামী করতে চান তার বক্ষদেশকে অতিশয় সংকীর্ণ করে দেন। এমনভাবে সংকীর্ণ করেন যে, যেন সে আকাশে আহরণ করছে। এমনিভাবেই যারা ঈমান আনয়ণ করে না, আল্লাহ রব্বুল আলামীন তাদের ওপর দুনিয়ার অকল্যান আর পরকালের শাস্তা চাপিয়ে দেন'..... সূরা আল আন'আম - আয়াত নং ১২৫ "
সুতারং আমরা সাক্ষ্য দিতেছি যে, মহান আল্লাহ রব্বুল আলামীন ছাড়া আমাদের আর কোন ইলাহ নেই এবং হযরত মুহাম্মাদ মুস্তফা সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আল্লাহ রব্বুল আলামীনের প্রেরিত বান্দা সর্বপ্রথম এবং সর্বশেষ নবী ও রসূল। আল্লাহ তায়ালা উনাকে দয়া এবং মায়া করে কিয়ামতের পূর্বে সত্য (ইসলাম) সহকারে সুসংবাদদাতা এবং ভীতি প্রদর্শক করিয়া পাঠাইয়াছেন। যে ব্যক্তি আল্লাহ রব্বুল আলামীন এবং হুযুর পাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের অনুগত করিল সে জ্ঞানীর কাজ করিল, আর যে ব্যক্তি অনুগত করিল না' নাফরমানী করিল সে বোকামী করিল তথা নিজের জন্য ধ্বংস ডাকিয়া আনিল।
হে আল্লাহর বান্দাগন এবং নবীজির উম্মতগন! আল্লাহ আপনাদের কে ভাগ্যবান করুন। আজ আপনারা দুনিয়ার সুখ-শান্তিতে আছেন আবার আগামীকল্য কিয়ামতের দিকে যাত্রা করিবেন। কিয়ামতের জন্য নেক আমল সংগ্রহ করিয়া লউন, কেননা ঐ দিনের ধন-দৌলত, পুত্র পরিজন কোন উপকারে আসিবেনা। ✪ নূর নবীজি সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন ' কেয়ামতে সূর্য মানুষের মাথার মাত্র এক সূরমা-শলাই অর্থাৎ ৩ ইঞ্চি পরিমান উপরে রাখা হইবে, তখন মানুষ নিজ নিজ কর্মানুসারে ঘর্মের (শরীরের ঘাম) মধ্যে অবস্থান করিবে, কাহারও পায়ের গাইট পর্যন্ত, কাহারও হাঁটু পর্যন্ত, কাহারও কটিদেশ পর্যন্ত, আর কাহারও মুখের চোয়াল পর্যন্ত ঘামের মধ্যে ডুবিয়া যাইবে।(মুসলিম)
✪ নবীজি সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আরো ইরশাদ করেন যে' কেয়ামতে মানুষকে নগ্নপদ ও খৎনা বিহীন  অবস্থায় উঠান হইবে। আম্মাজান হযরত আয়েশা (রাঃ) বলেন, - আমি বলিলাম -- ইয়া রসূলাল্লাহ ! নর নারী সকলকেই কি এই অবস্থায় উঠান হইবে? তখন তারা কি একে অপরের দিকে তাকাইবেনা? নবীজি সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম উত্তর করিলেন _ হে আয়েশা! মানুষ তখন নিজ নিজ চিন্তায় এমনভাবে মগ্ন থাকিবে, যে একে অপরের দিকে তাকাইবার সময় পাইবে না।(বুখারী শরীফ)
✪ হুযুর পাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন ' সেই দিন জাহান্নামকে টানিয়া কিয়ামতের ময়দানে আনয়ন করা হইবে - জাহান্নামের ৭০ হাজার শিকল থাকিবে, তাহার প্রত্যেক শিকলে ৭০ হাজার করিয়া ফেরেশতা থাকিয়া উহা টানিয়া আনিবে। (মুসলিম শরীফ)
✪ আম্মাজান হযরত আয়েশা (রাঃ) একদিন দোযখের কথা স্বরন করিয়া কাঁদিয়া উঠিলে '  নবীজি সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম জিজ্ঞাসা করিলেন, " তুমি কাঁদিতেছ কেন?" আম্মাজান হযরত আয়েশা (রাঃ) উত্তর করিলেন -- দোযখের কথা স্বরন করিয়া কাঁদিতেছি। আপনারা কি আপনাদের পরিবারবর্গের কথা কেয়ামতের দিন স্বরন রাখিবেন? নবীজি সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম জবাব দিলেন -- তিনটি স্থানে কেহ কাহারও কথা স্বরন রাখিবে না। * তুলাদন্ডের নিকট, সেখানে প্রত্যেকেই নিজের নেকের ওজন বেশী হয় না কম হয় সেই দিকেই খেয়াল করিয়া থাকিবে। * আর যখন আমলনামা দিয়া বলা হইবে যে, ওহে! তোমার আমলনামা  পাঠ কর। তখন প্রত্যেকেই চিন্তায় থাকিবে যে, তাহার আমলনামা ডান হাতে দেয়া হবে না কি পিছন হইতে বাম হাতে দেয়া হবে, * আর পুলছিরাতের নিকটে -- যখন উহা জাহান্নামেের দুই পার্শ্বের উপরে বসান হইবে। (আবু দাউদ শরীফ)

✪ মহান আল্লাহ পাক পবিত্র কুরআনে সূরা বনী ইসর'ঈলে ইরশাদ করেন.....


( ১৩ ) প্রত্যেক মানুষের ভালমন্দ কাজের নিদর্শন আমি তার গলায় ঝুলিয়ে রেখেছি এবং কিয়ামতের দিন তার জন্য বের করবো একটি লিখন, যাকে সে খোলা কিতাবের আকারে পাবে৷


( ১৪ ) পড়ো, নিজের আমলনামা, আজ নিজের হিসেব করার জন্য তুমি নিজেই যথেষ্ট৷


( ১৫ ) যে ব্যক্তিই সৎপথ অবলম্বন করে, তার সৎপথ অবলম্বন তার নিজের জন্যই কল্যাণকর হয়৷ আর যে ব্যক্তি পথভ্রষ্ট হয়, তার পথভ্রষ্টতার ধ্বংসকারিতা তার ওপরই বর্তায়৷ কোনো বোঝা বহনকারী অন্যের বোঝা বহন করবে না৷ আর আমি (হক ও বাতিলের পার্থক্য বুঝাবার জন্য) একজন পয়গম্বর না পাঠিয়ে দেয়া পর্যন্ত কাউকে আযাব দেই না৷


✪ মহান আল্লাহ পাক পবিত্র কুরআনে সূরা ত্ব-হা শরীফে ইরশাদ করেন.....


( ১২৪ ) এবং যে ব্যক্তি আমার জিকির থেকে মুখ ফিরিয়ে নেবে, তাহার জন্য কষ্টময় জীবন নির্ধারিত হইয়াছে। এবং আমি তাহাকে কেয়ামতের দিবসে অন্ধ করিয়া উঠাইব।


( ১২৫ ) সে বলবেঃ হে আমার পালনকর্তা আমাকে কেন অন্ধ করিয়া উঠাইলেন? আমি তো চক্ষুমান ছিলাম।


( ১২৬ ) আল্লাহ বলবেনঃ এমনিভাবে তোমার কাছে আমার আয়াতসমূহ এসেছিল, অতঃপর তুমি সেগুলো ভুলে গিয়েছিলে। তেমনিভাবে আজ তোমাকে ভোলা হইয়াছে।


( ১২৭ ) এমনিভাবে আমি তাকে প্রতিফল দেব, যে সীমালঙ্ঘন করে এবং পালনকর্তার কথায় বিশ্বাস স্থাপন না করে। তার পরকালের শাস্তি কঠোরতর এবং অনেক স্থায়ী।


হে আল্লাহ রব্বুল আলামীন! আপনি আমাদিগকে কিয়ামতের বিপদে আপদে সাহায্য করুন এবং আমাদের জন্য হুযুর পাক সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের শাফায়াত লিখিয়া দিন - তিনিই শাফায়াতকারী। আল্লাহুম্মা আমীন।



================================================================================================================================================




"Bismillahir Rahmanir Rahim"
All praise is due to Allah Almighty, we sing praises to him and seek help from him and we are praying only for him. And we are praying for help in the court of Allah Almighty to save us from the evil of our desires. No one can mislead whom Allah Almighty guides, and on the contrary, when the person becomes determined to go astray after his own intention (after being defeated by his own intention, to keep himself guided by the way), Allah Almighty If someone sets a mistake for him, then no one can guide him. In this regard, Allah Almighty says in the Holy Qur'an ... "Therefore, whom Allah Almighty wants to show, he enlarges his chest (heart) for Islam, and makes the chest of the person who wants to stray into it very narrow, in such a way narrow It is as if he is getting into the sky, and so is the one who does not believe, Allah Almighty, the punishment of the world and the punishment of the Hereafter. Lays' ..... Surah Al-Anaam - Ayat No. 125 "

Read More »

Thursday, June 7, 2018

"ফিতরা বা সাদাকাতুল ফিতর সম্পর্কিত আলোচনার প্রথম পর্ব"

" বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম "

ভূমিকা ⠅ পবিত্র দ্বীন ইসলামের অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ন অংশ হল ফিতরা বা সাদাকাতুল ফিতর। আল্লাহ রব্বুল আলামীন এবং হুযুর পূর নুর ছল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর পক্ষ থেকে প্রত্যেক স্বাধীন মুসলমান নর নারীর তথা নির্বিশেষে সকল মুসলমানের উপর নির্দিষ্ট পরিমাণ সম্পদের মালিক হওয়ার শর্তে " ফিৎরা বা সাদাকায়ে ফেতর ওয়াজিব করা হয়েছে।


ফিতরা / ফেৎরা / সাদাকাতুল ফিতর এর পারিভাষিক অর্থ ⠅ পবিত্র রমাদ্ব'নুল মুবারক (রমযান) মাস শেষ হওয়ার পরে ঈদুল ফিতরের দিন 'পবিত্র কুরআন শরীফ এবং হাদীস শরীফ মোতাবেক যে নির্দিষ্ট পরিমান সম্পদ শর্ত সহকারে দান করা হয় তাকে সাদাকাতুল ফিতর বলে। মোট কথা ঈদের দিন সুবহে সাদিকের সময় হাদীস মোতাবেক নির্দিষ্ট পরিমান সম্পদের মালিক হওয়ার কারনে যে সদকা করতে হয় তাকেই সদাকতুল ফিতর বলে।
[বিভিন্ন স্থানের দেশীয় প্রচলিত ভাষা অনুযায়ী "ফিতরা / ফিৎরা / ফেতরা / ফেৎরা / সাদাকায়ে ফেতর / ছাদাকায়ে ফিতর / ছাদাকাতুল ফিতর / সাদাকাতুল ফিতর" দ্বারা একই জিনিষ কে বুঝানো হয়ে থাকে]

ফিৎরা / ফেতরা / সাদাকায়ে ফেতর এর হুকুম ⠅ পবিত্র কুরআন শরীফ এবং পবিত্র হাদীস শরীফ মোতাবেক ঈদুল ফিতরের দিন সুবহে সাদিকের সময় নির্দিষ্ট পরিমান ধন সম্পদ টাকা পয়সা সোনা রূপা ইত্যাদির মালিক হওয়ার শর্তে বালেগ / নাবালেগ সহ নির্বিশেষে সকল মুসলমান নর ও নারীগনের উপর সাদাকাতুল ফিতর আদায় করা ওয়াজিব করা হয়েছে।
*ইমাম আবু হানীফা (র) এর মতে , সাদাকাতুল ফিতর ওয়াজিব।
* আল্লামা তিবী (র) এর মতে , সাদাকাতুল ফিতর ফরয।
*ইমাম শাফেয়ী (র) এর মতে , সাদাকাতুল ফিতর ফরয।

সাদাকাতুল ফিতর কার উপর ওয়াজিব ⠅ ইসলামী শরীয়তের হুকুম অনুযায়ী প্রত্যেক স্বাধীন নাবালেগ / বালেগ পুরুষ / মহিলা নির্বিশেষে শর্ত সাপেক্ষে সকল মুসলমানের উপর সাদাকাতুল ফিতর ওয়াজিব। তবে শর্ত এই যে ঈদুল ফিতরের দিন সুবহে সাদিকের পূর্বে নির্দিষ্ট পরিমাণ সম্পদের মালিক হতে হবে। ওয়াজিব না হওয়া সত্বেও আপন খেয়াল খুশি থেকে ফিতরা আদায় করলে তা মুস্তাহাব হিসেবে গণ্য হবে এবং অনেক বেশী সওয়াব হবে। কারন, হাদীস শরীফে এসেছে 'গরীব হওয়া সত্বেও কষ্ট করিয়া যে আল্লাহর রাস্তায় সদকা দেয় , তাহার দান কে আল্লাহ রব্বুল আলামীন অনেক পছন্দ করেন।

যে পরিমাণ সম্পদ থাকিলে সাদাকাতুল ফিতর ওয়াজিব হয় ⠅ ঈদুল ফিতরের দিন সুবহে সাদিকের সময় যে ব্যক্তি হাওয়ায়েজে আছলিয়া অর্থাৎ, জীবিকা নির্বাহের অত্যাবশ্যকীয় উপকরন "যেমনঃ পোশাক পরিচ্ছেদ, বাসস্থান, খাদ্য দ্রব্য,  যে জিনিসের নির্ভর করে সংসার চলে তা ব্যতীত সাড়ে সাত তোলা স্বর্ন বা সাড়ে ৫২ তোলা রূপা অথবা সমমূল্যের অন্য কোন সম্পদ, টাকা পয়সা থাকিবে তাহার উপর সাদাকাতুল ফিতর ওয়াজিব হইবে। সেই মাল সম্পদ ব্যবসার জন্য হউক বা না হউক, বা সেই সম্পদের বয়স পূর্ন এক বছর হউক বা না হউক। [জীবিকা নির্বাহের আবশ্যকীয় উপকরনসমূহকে "হাওয়াজে আছলিয়া" বলে। ///// ২০০ দেরহাম পরিমাণ সম্পত্তির অধিকারীকে মালেকে নেছাব বলে, আমাদের দেশীয় হিসাব অনুযায়ী ২০০ দেরহামে সাড়ে ৫২ তোলা রূপ হয়।]

যাদের পক্ষ থেকে আপনাকে সাদাকাতুল ফিতর / ফেৎরা আদায় করতে হবে ⠅ ইসলামী শরীয়তের হুকুম অনুযায়ী নির্দিষ্ট পরীমান সম্পদের মালিক হওয়ার শর্তে যার উপর ফিতরা ওয়াজিব হয়েছে 'তিনি নিজের পক্ষ থেকে, তার নাবালেগ ছেলে মেয়ের পক্ষ থেকে, ঈদের দিন সুবহে সাদিকের পূর্বে যে সন্তান জম্ম নিয়েছে তার পক্ষ থেকে, আপন ঘরের কাজে নিযুক্ত গোলামের পক্ষ থেকে এবং বাড়িতে কোন অমুসলিম গোলাম থেকে থাকলে তার পক্ষ থেকে সাদাকাতুল ফিতর বা ছদ্ক্বায়ে ফেৎর আদায় করতে হবে।

যাদের পক্ষ থেকে আপনার উপর ফেৎরা / ছদাকতুল ফিৎর আদায় করা ওয়াজিব নয় ⠅ আপন স্ত্রীদের এবং আপন ঔরসজাত প্রাপ্ত বয়স্ক ছেলে মেয়েদের পক্ষ থেকে সদাকতুল ফিতর আদায় করা ওয়াজিব নহে। তবে পুরুষ ব্যক্তি ইচ্ছা করিলে তাহার স্ত্রী, এক পরিবারভুক্ত থাকিলে তাহার প্রাপ্ত বয়স্ক ছেলে / মেয়ে, এবং আপন পিতা মাতার পক্ষ থেকে সাদাকাতুল ফিতর আদায় করতে পারবে, এটা মুস্তাহাব।
[মেয়েলোকের শুধুমাত্র নিজের ফেতরা দেয়া ওয়াজিব। স্বামী, সন্তান, বাবা, মা এবং অন্য কাহারো পক্ষ থেকে ফিৎরা আদায় করা ওয়াজিব নহে।]

সাদাকাতুল ফিতর বা ফিতরা কাকে দিতে হবে ⠅ আপন আত্মীয় - স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশী, পার্শ্ববর্তী বা দূরবর্তী লোকদের মধ্যে যাহারা ফকির , মিসকিন , গরীব - দুঃখী আছে তাহাদেরকে দিতে হবে। আলেম উলমা, ইমাম, মোয়াজ্জিন, যদি গরীব হয় দেয়া যাবে। একজনের ফিতরা একজনকে অথবা কয়েকজনের ফিতরা একজনকে কিংবা একজনের ফিতরা কয়েকজনকে উভয়ই জায়েয। তবে খেয়াল রাখতে হবে কাউকে এত বেশি দেয়া যাবেনা যে, যার ফলে উল্টো গ্রহনকারীর উপরই যেন সাদাকাতুল ফিতর ওয়াজিব হয়ে যায়।

সাদাকাতুল ফিতর কখন দিতে হবে ⠅ ঈদুল ফিতরের দিন ঈদগাহে যাওয়ার আগেই সাদাকাতুল ফিতর আদায় করা মুস্তাহাব। যদি একান্ত আগে নাই দিতে পারে তবে পরে দিলেও হবে। আবার কেহ যদি রমযান মাসেই ফিতরা দিয়ে দেয় তাও জায়েয হবে। যদি যথা সময়ে ফিতরা না দেয় ওয়াজিব হিসেবে তা ঝুলন্ত থাকবে, অবশ্যই তা আদায় করতে হবে, আদায় না করা পর্যন্ত তা মাপ হবেনা।

যাদের কে ফিৎরা দেয়া জায়েয নেই ⠅ নবী বংশ তথা সাইয়্যেদগন কে, "সম্পদশালী লোক এবং তাহাদের নাবালেগ সন্তানদের কে, এবং "নিজের বাবা, মা, দাদা, দাদী, নানা, নানী, নিজের ছেলে মেয়ে, নাতি, নাতনী ইত্যাদিগকে ফিতরা বা যাকাত দেয়া জায়েয নেই। তারা যদি গরীব হয় নিজের সম্পদের থেকে ভাগ / হাদিয়া - তোহফা দিয়ে সহযোগীতা করতে হবে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন বাংলাদেশ কতৃক নির্ধারিত ২০১৮ - 2018 সালের সাদাকাতুল ফিতর বা ফিতরার পরিমাণ এবং যে সকল জিনিষ দিয়ে ফিতরা দেয়া যাবে ⠅
১/ আটা দিয়ে যদি কেহ ফিতরা আদায় করতে চায় তাহলে " অর্ধ সা বা ১ কেজি ৬৫০ গ্রাম বা এর সর্বোচ্চ বাজার মূল্য হিসেবে ৭০ টাকা জনপ্রতি দিতে হবে।
২/ যব দ্বারা যদি ফিৎরা আদায় করতে চায় তাহলে " এক সা বা ৩ কেজি ৩০০ গ্রাম বা এর সর্বোচ্চ বাজার দর হিসেবে জনপ্রতি ৫০০ টকা করে দিতে হবে।
৩/ কিসমিস দিয়ে ফিতরা আদায় করতে চাইলে, এক সা বা ১ কেজি ৩০০ গ্রাম বা তার সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ১৩২০ টাকা করে জনপ্রতি দিতে হবে।
৪/ খেজুর দ্বারা ফেৎরা আদায় করতে চাইলে জনপ্রতি " এক সা বা ১ কেজি ৩০০ গ্রাম বা এর সর্বোচ্চ বাজার মূল ১৯৮০ টাকা কর প্রদান করিতে হইবে।
৫/ পনির দিয়ে যদি আপনি ফিতরা আদায় করতে চান তাহলে " এক সা বা ১ কেজি ৩০০ গ্রাম বা তার সর্বোচ্চ বাজার মূল্য ২৩১০ টাকা করে জনপ্রতি আদায় করতে হবে।

বিঃ দ্রঃ - উপরোক্ত পণ্যসমূহের দাম স্থান কাল ভেদে পরিবর্তন হতে পারে। সেক্ষেত্রে স্থানীয় দাম অনুযায়ী উপরোক্ত নিয়মে হিসেব করে ফিত্বরা আদায় করলে তা জায়েয হবে।
 ✱ এছাড়া মনে রাখতে হবে, আপনার যদি পনির বা তার সমমূল্য ২৩১০ টাকা দিয়ে ফিতরা আদায় করার যোগ্যতা থাকে তবে অন্য কিছু দিয়ে ফিতরা আদায় করা উচিৎ হবেনা।
✱ আপনার যদি পনির বা সমমূল্য ২৩১০ টাকা দেয়ার মত সক্ষমতা না থাকে , কিন্তু খেজুর বা সমমূল্য ১৯৮০ টাকা দিয়ে ফিতরা আদায়ের সক্ষমতা থাকে তবে তাই দিয়ে দিবেন। এর চেয়ে কম মূল্য / জিনিষ দিয়ে আদায় করা ঠিক হবেনা।
✱ এভাবে কিসমিস / ১৩২০ টাকা দিতে পারলে তাই দিতে হবে। এর চেয়ে কম মূল্যের জিনিষ দেয়া উচিৎ হবেনা।
✱তেমনি ভাবে জব / ৫০০ টাকা দিতে পারলে তাই দিতে হবে। এর চেয়ে কম মূল্যের জিনিষ দিবেননা।
✱ আর যদি আটা দ্বারা ফিতরা আদায়ের যোগ্যতা থাকে তাই দিবেন, তবে এর চেয়ে দামি জিনিষ / মূল্য দিয়ে ফিতরা আদায় করতে পারলে অধিক সওয়াব হবে। কারন, হাদীস শরীফে সর্বোত্তম দামি মাল দ্বারা ফিতরা আদায়ের তাগিদ করা হয়েছে।


সাদাকাতুল ফিত সম্পর্কিত হাদীস শরীফ সমূহ ⠅
হযরত আবদুল্লাহ ইবনে ওমর রা) বলেন , নবীজি সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সদকায়ে ফিতর খেজুর ও যবের এক সা পরিমানে দাস, স্বাধীন, নারী, পুরুষ, ছোট, বড় সকল মুসলমানের উপর ফরজ করেছেন এবং ঈদগাহে যাবার পূর্বেই সদকায়ে ফিতর আদায়ের নির্দেশ করেছেন।


দলীলঃ
১/ তাহসীনুল কুদুরী।
২/বেহেশতী জেওর


================================================================================================================================================


Introduction ⠅ Sacred Religion is one of the important parts of Islam, Fitra or Sadakat-ul-Fitr. On behalf of Allah Almighty and Huzur the Prophet Nur (peace and blessings of Allaah be upon him), every independent Muslim, on the condition of being the owner of a certain amount of wealth, regardless of women, regardless of women, "Fitra or Sadat-e-Fitr was obliged.




The technical meaning of Fitra / Fitra / Sadakat-ul-Fitr is that after the end of the month of Ramadan Mubarak (Ramadan), the specific amount of wealth that is given in accordance with the holy Qur'an and the hadith according to the tradition of Eid al-Fitr is called Sadakat-ul-Fitr. According to the fact that on the occasion of Eid al-Sadik, as the owner of a certain amount of wealth, according to the hadith, he is the person who has to do the charity, he is also called Sadaktul Fitr.


Read More »

Saturday, June 2, 2018

" টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশ - এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Result 2018 Technical Education Board )"

বাংলাদেশ টেকনিক্যাল শিক্ষাবোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত ২০১৮ সালের এইচ এস সি পরীক্ষার রেজাল্ট আগামী ১৯ ই জুলাই প্রকাশিত হবে। ১৯ ই জুলাই দুপুর থেকে অনলাইন এবং মোবাইল ফোন থেকে এসএমএস পাঠিয়ে আপনার কাঙ্খিত টেকনিক্যাল শিক্ষাবোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Result 2018 Technical Education Board ) জানতে পারবেন।

মোবাইল ডিভাইস থেকে SMS পাঠিয়ে টেকনিক্যাল শিক্ষাবোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Result 2018 Technical Education Board ) জানবেন যেভাবে⠅Mobile Phone থেকে SMS পাঠিয়ে টেকনিক্যাল শিক্ষাবোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Result 2018 Technical Education Board ) জানতে......
HSC Result 2018 Technical Board | এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ টেকনিক্যাল বোর্ড

অনলাইন থেকে আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে টেকনিক্যাল শিক্ষাবোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Exam Result 2018 Technical Education Board ) জানবেন যেভাবে⠅আপনি সবার আগে সবচেয়ে দ্রুত এবং খুব সহজেই আপনার এইচ এস সি পরীক্ষার রোল এবং রেজিষ্ট্রেশন নম্বর দিয়ে টেকনিক্যাল শিক্ষাবোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Exam Result 2018 ) মার্কশিট সহকারে ডাউনলোড করতে নিচের বক্সে ক্লিক করে পরবর্তী পেজে Roll এবং Reg: Number সহ সবকিছু ঠিকঠাক মত পূরন করে সাবমিট করুন.........
HSC Result 2018 Technical Board | এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ টেকনিক্যাল বোর্ড

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number দিয়ে অনলাইন থেকে টেকনিক্যাল শিক্ষাবোর্ডের এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC Result 2018 ) জানবেন যেভাবে⠅আপনি নিচের বক্সে ক্লিক করে পরবর্তী পেজে আপনার শিক্ষাবোর্ড সিলেক্ট করুন এবং Eiin Number এর ঘরে কাঙ্খিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Eiin Number প্রবেশ করিয়ে সাবমিট করুন............
HSC Result 2018 Technical Board | এইচ এস সি রেজাল্ট ২০১৮ টেকনিক্যাল বোর্ড
বাংলাদেশ মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের অধীনস্থ সকল শিক্ষাবোর্ডের এইচ এস সি আলিম রেজাল্ট ২০১৮ ( HSC and Alim Result 2018 ) জানতে নিচের লিষ্ট থেকে আপনার পছন্দের শিক্ষাবোর্ডটি সিলেক্ট করুন............
➜ঢাকা শিক্ষাবোর্ড ।। চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ড ।। সিলেট শিক্ষাবোর্ড ।। কুমিল্লা শিক্ষাবোর্ড ।। রাজশাহী শিক্ষাবোর্ড ।। যশোর শিক্ষাবোর্ড ।। বরিশাল শিক্ষা বোর্ড ।। দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ড ।। টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ড ।। মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ড"


বাংলাদেশ টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ড (বিটিইবি)
পটভূমি
1947 সালে ব্রিটিশ ভারতে বিভাজিত হওয়ার পরপরই, পূর্ব পাকিস্তানে এখন বাংলাদেশকে প্রযুক্তিগত শিক্ষা ও প্রশিক্ষণের সুযোগ দেওয়া খুব অপর্যাপ্ত ছিল। ফলস্বরূপ, সেই সময়ে গৃহীত অর্থনৈতিক কর্মকান্ডে প্রয়োজনীয় দক্ষ জনশক্তির একটি বড় অভাব ছিল। এই অভাবের সম্মুখীন হওয়ার পর প্রযুক্তিগত শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ সুবিধাগুলির উন্নয়নে এবং সম্প্রসারণের জন্য দেওয়া হয়।
সুতরাং, পরবর্তীকালে বাণিজ্য, শ্রম ও শিল্প বিভাগের গভর্নর একটি বোর্ড প্রতিষ্ঠা করেন যার নাম "পূর্ব পাকিস্তানের বোর্ড অফ টেকনিক্যাল এডুকেশন ফর টেকনিক্যাল এডুকেশন"। 1954 সালে একটি নির্বাহী আদেশের ভিডিও জিওও নম্বর 188-ইন্ড। ২7.1.54 তারিখের কারিগরি ও বৃত্তিমূলক ইনস্টিটিউটের স্নাতকদের প্রশিক্ষণ ও নিয়ন্ত্রণ পরীক্ষা এবং পুরস্কার সার্টিফিকেট।
1960 সালে প্রযুক্তিগত ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার উন্নয়নের জন্য প্রযুক্তিগত শিক্ষা অধিদপ্তর স্থাপিত হয়। কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তর দেশের দ্রুত ডিগ্রি, ডিপ্লোমা এবং বাণিজ্য স্তর প্রযুক্তিগত শিক্ষার দ্রুত উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ কাজ শুরু করে।
একাডেমিক কার্যক্রমের ক্রমবর্ধমান মাত্রায় মোকাবেলা করার জন্য, একটি "স্টাটিউটরি বোর্ড" প্রতিষ্ঠার প্রয়োজনটি গভীরভাবে অনুভব করলো। আইন অনুযায়ী একটি সংবিধিবদ্ধ সংস্থা "পূর্ব পাকিস্তানের প্রযুক্তিগত শিক্ষা" প্রতিষ্ঠিত হয়। পূর্ব পাকিস্তানের বিধানসভার 1 9 67 সালের 1 ম কোনটি বর্তমানে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড (বিটিইবি)।
এভাবে বাংলাদেশ টেকনিক্যাল শিক্ষা বোর্ড বাংলাদেশের সমগ্র অঞ্চলের উপর আধিপত্য প্রতিষ্ঠা, তত্ত্বাবধান, নিয়ন্ত্রণ, নিয়ন্ত্রণ ও প্রযুক্তিগত ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা বিকাশের ক্ষেত্রে অস্তিত্ব লাভ করে। 196২ সালের জুন থেকে বর্তমান প্রজন্মের বোর্ড কার্যকর হয়ে উঠেছে।

* বোর্ডের সংবিধান
বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি বোর্ডের নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ। বোর্ড সম্পর্কিত নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষের অবস্থা বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলরের অনুরূপ।

* বোর্ড গঠিত হয় নিম্নরূপ:
চেয়ারম্যান
নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ দ্বারা চেয়ারম্যান নিযুক্ত করা হয় তিনি বোর্ডের পুরো সময় কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

* প্রাক্তন সদস্যগণ
কারিগরি শিক্ষার মহাপরিচালক ড
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো
পরিচালক, বিটি, গাজীপুর
প্রিন্সিপাল, কারিগরি শিক্ষক প্রশিক্ষণ কলেজ, ঢাকা।

* মনোনীত সদস্যরা
ন্যাশনাল কাউন্সিল অফ টেকনিকাল এডুকেশন কর্তৃক মনোনীত একজন ব্যক্তি।
বুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর বা তাঁর মনোনীত একজন অধ্যাপক।
শিক্ষা মন্ত্রণালয় কর্তৃক মনোনীত পলিটেকনিক ও মনোটেকনিক ইনস্টিটিউটের তিন প্রিন্সিপাল।
নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ কর্তৃক মনোনীত কারিগরি শিক্ষায় আগ্রহী চারটি বিশিষ্ট ব্যক্তির

* ক্রিয়াকলাপ
বোর্ড প্রধান ফাংশন হয়:
নির্দেশিকা কোর্স নির্ধারণ
শেখার উপকরণ উন্নয়ন করার ব্যবস্থা করা
সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহের সাথে সংযুক্তকরণ, অনুমোদন বা আটকানো, অনুমোদন প্রদানের জন্য
ভর্তি এবং স্থানান্তর বা ছাত্রদের শাসন শর্তাবলী নির্ধারণ
পরিদর্শন এবং পদ্ধতির পদ্ধতিটি নির্ধারণ করতে
শিক্ষার শিক্ষা পদ্ধতি / কার্যক্রমগুলি নিরীক্ষণের জন্য
পরীক্ষা পরিচালনা এবং নিয়ন্ত্রন করতে, কর্মক্ষমতা মূল্যায়ন এবং তার ফলাফল প্রকাশ
পাস করা স্নাতক পর্যন্ত ডিপ্লোমা / সার্টিফিকেট প্রদান
সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও ব্যবস্থাপনার মধ্যে মধ্যস্থতা বা ব্যবস্থাপনার জন্য;
BTEB- এর পদসমূহের নির্মূল ও বিলোপন সহ সমস্ত প্রশাসনিক বিষয়গুলি নিয়ন্ত্রণ ও নিষ্পত্তি;
চাহিদা মেটানোর জন্য এবং প্রবিধান দ্বারা নির্ধারিত ফি গ্রহণ করতে;
অব্যাহতি এবং পরিচালনা এবং পরিচালনা এবং ইনস্টিটিউট এবং পুরস্কার বৃত্তি এবং পদক পুরস্কার।
অন্যান্য শিক্ষা / কার্যক্রম এবং বিষয়গুলি সম্পাদন করতে যেমনটি সাংগঠনিক বিধিনিষেধ, তত্ত্বাবধান, নিয়ন্ত্রণ, ব্যবস্থাপনা এবং কারিগরি শিক্ষা উন্নয়নের উদ্দেশ্যে প্রয়োজনীয় বিবেচিত হতে পারে।
অপারেশন
বোর্ডের দায়িত্বগুলি সহজভাবে কার্যকর করার জন্য চেয়ারম্যানের পরিচালনায় কাজটি সম্পন্ন করার জন্য তিন বিভাগ রয়েছে।
প্রতিটি বিভাগের ফাংশন নিম্নরূপ:
প্রশাসন
এই বিভাগটি একটি সচিব দ্বারা পরিচালিত হয়। তিনি বোর্ডের অঙ্কন ও বিতরণকারী কর্মকর্তা এবং সকল প্রশাসকের ক্ষেত্রেও দায়িত্বশীল। কর্মচারী নিয়োগের জন্য নিয়োগপত্র, ছুটি প্রদান ইত্যাদি বিষয়ে সম্মতি প্রদান, অনুমোদনের জন্য বোর্ডের বার্ষিক বাজেট প্রণয়ন এবং জমা রাখা, বোর্ডের তহবিল ইত্যাদির ব্যয়, সংরক্ষণ ও সংরক্ষণের রেকর্ড রাখা। এই ছাড়াও তিনি কমিটির সমস্ত বোর্ড আহ্বান এবং চেয়ারম্যান / বোর্ড দ্বারা নির্ধারিত এবং যখন অন্য কোন কার্যক্রম সম্পাদন করা হয়। সচিবকে এক উপসচিব, একজন সহকারী সচিব, এক সহকারী উইং এর মসৃণ কার্যকরীকরণের জন্য অ্যাকাউন্ট অফিসার, এক রেজিস্ট্রেশন অফিসার এবং ত্রিশ জনকে সহায়তাকারী কর্মী।
পাঠ্যক্রম
কারিকুলাম উইং এর নেতৃত্বে একজন পরিচালক পরিচালিত হয়, যিনি উন্নয়ন, মূল্যায়ন পুনর্বিবেচনা এবং বিভিন্ন অনুমোদিত এবং অনুমোদিত কোর্সের জন্য নতুন পাঠ্যক্রমের জন্য দায়ী। তিনি যথাযথ শিক্ষা উপকরণ প্রস্তুত এবং বিভিন্ন প্রযুক্তি ক্ষেত্রের বইপত্র, শিক্ষাগত নিয়মের প্রস্তুতি এবং পুনর্বিবেচনা, অনুমোদিত প্রতিষ্ঠানসমূহের পরিদর্শন এবং একাডেমিক কার্যক্রমের মূল্যায়ন, সমতার সকল ক্ষেত্রে পরীক্ষা এবং সংযুক্তকরণের মান পরীক্ষা এবং অন্য কোনও বহন করার জন্য দায়ী। চেয়ারম্যান / বোর্ড কর্তৃক প্রদত্ত দায়িত্ব পাঠ্যক্রম বিভাগের বোর্ডের কারিকুলাম কার্যক্রম সম্পর্কিত কাজটি সম্পন্ন করার জন্য ছোট মুদ্রণ-সহ-প্রজনন অধ্যায় রয়েছে। পরিচালককে একজন উপ-পরিচালক (গবেষণা), এক মূল্যায়ন কর্মকর্তা, তিন পাঠ্যক্রম বিশেষজ্ঞ, এক ডকুমেন্টেশন অফিসার, এক প্রেস ম্যানেজার এবং বিশ এক সাপোর্টিং স্টাফ দ্বারা সহায়তা করা হয়।
পরিচালক, পাঠ্যক্রম বোর্ডের নতুন প্রতিষ্ঠিত রিসার্চ সেলের গবেষণামূলক কার্যক্রমের জন্য দায়ী এবং একটি অনুমোদনপ্রাপ্ত প্রকল্পের অধীনে বোর্ডের বিভিন্ন পাঠ্যপুস্তকের পাঠ্য পুস্তকগুলির উৎপাদন। বোর্ডের পাঠ্যক্রম বিভাগ বোর্ডে অনুষ্ঠিত হয় যখন CPSC এবং ইউনেস্কো UNEVOC ক্রিয়াকলাপ একাডেমিক সমর্থন দিতে হয়।
পরীক্ষা
বোর্ডের পরীক্ষার বিভাগ পরিচালিত হয় পরীক্ষার নিয়ন্ত্রক, যিনি অনুমোদিত কেন্দ্রগুলিতে অনুমোদিত কোর্সের পরীক্ষার ব্যবস্থা এবং পরিচালনা করার জন্য দায়ী। তিনি প্রধান পরীক্ষার নিয়োগের কাজ তত্ত্বাবধান করেন। প্রশ্নপত্রের প্রিন্টিং, সংশ্লিষ্ট কাগজপত্রের প্রিন্টিং এবং পরীক্ষার স্ক্রিপ্টগুলির পরীক্ষা, পরীক্ষার ফলাফল, পরীক্ষা সম্পর্কিত অনুশাসনমূলক কার্যক্রম, নিয়মগুলি সম্পাদন, ফলাফল প্রকাশ, মার্ক শীট ও সার্টিফিকেট প্রেরণ, সংরক্ষণ, সংরক্ষণ ও সংরক্ষণের জন্য রেকর্ড ইত্যাদি। পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক পরীক্ষার বিষয় সম্পর্কিত বৈঠক আহ্বান, সংশ্লিষ্ট পরীক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ এবং চেয়ারম্যান / বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত অন্যান্য দায়িত্ব এবং দায়িত্ব পালন করতেও দায়ী। তিনি দুটি ডেপুটি কন্ট্রোলার, তিনজন সহকারী কন্ট্রোলার এবং পনের সমর্থনকারী কর্মীরা
Read More »